এআইআইবি’র পরিকল্পনায় ২৫ কোটি ডলার

0
377

এশীয় অবকাঠামো বিনিয়োগ ব্যাংক (এআইআইবি) বাংলাদেশে ২৫ কোটি মার্কিন ডলার অর্থায়নের পরিকল্পনা নিয়েছে। তারা কোভিড-১৯ মোকাবেলায় বাংলাদেশ সরকারের সার্বিক প্রচেষ্টায় সহযোগিতা করতে আগ্রহী।

এআইআইবি’র ভাইস প্রেসিডেন্ট (বিনিয়োগ অপারেশন্স) ডিজে পান্ডিয়ান এক সাক্ষাতকারে বলেছেন, ‘আমরা সংকট পরিস্থিতি চলাকালে নাগরিকদের স্বাস্থ্য ও সুরক্ষা নিশ্চিত করতে বাংলাদেশের জন্য ২৫ কোটি মার্কিন ডলার তহবিলের অনুমোদনের জন্য কাজ করছি। এ লক্ষ্যে বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে আলোচনা চলছে। খবর: বাসস।

তিনি বলেন, এআইআইবি কোভিড-১৯-এর সামাজিক ও অর্থনৈতিক ক্ষতি প্রশমিত করতে সহায়তা প্রদানের বিষয়ে আলোচনা করছে।

ডিজে পান্ডিয়ান বলেন, এই কর্মসূচি সরকারের সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনীতে দুর্বল গোষ্ঠীগুলির জন্য প্রসারিত ও জোরদার করতে এবং রফতানিমুখী ক্ষুদ্র-মাঝারি আকারের উদ্যোগগুলো (এসএমই) সহ ক্ষতিগ্রস্ত শিল্পকে সহায়তা করতে সহায়ক হবে।

পান্ডিয়ান অবশ্য বলেন, সরকারের প্রাথমিক পদক্ষেপগুলো পরিবর্তিত পরিস্থিতির সঙ্গে লড়াই করতে সহায়তা করবে। কারণ দেশটি কোভিড-১৯ এর অর্থনীতিতে ক্ষতি প্রশমিত করার সঠিক পথে রয়েছে।

সরকার ইতোমধ্যে কোভিড-১৯ এর কারণে অর্থনৈতিক ক্ষতি মোকাবেলায় এক লাখ কোটি টাকার প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করেছে।

এআইআইবি’র ভাইস প্রেসিডেন্ট বলেন, এআইআইবি দেশের উন্নয়নে অবদান অব্যাহত রাখার লক্ষ্যে বাংলাদেশের আরও অবকাঠামোগত প্রকল্পে সহযোগিতা বাড়ানোর পরিকল্পনা করছে।

তিনি বলেন, ‘এআইআইবি বাংলাদেশ সম্পর্কে খুবই আশাবাদী। কারণ এর জনগণ খুব সক্রিয় রয়েছে। বাংলাদেশ গত এক দশকে প্রতিটি খাতে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি অর্জন করেছে।’

তিনি বলেন, একসময় বাংলাদেশকে দারিদ্র্যপীড়িত দেশ হিসেবে বিবেচনা করা হত, তবে এখন অর্থনৈতিক উন্নয়নে ‘মিরাকেল’ করার জন্য বিশ্বজুড়ে প্রশংসিত হচ্ছে।

পান্ডিয়ান বলেন, মাল্টি-ডোনার ব্যাংকটি পানি সরবরাহ ও মহাসড়ককে চার লেনে উন্নীতকরণসহ আরও কিছু প্রকল্পে অর্থায়ন করার কথা ভাবছে।

এআইআইবি’র আটটি শীর্ষ অগ্রাধিকার উন্নয়ন প্রকল্পে বাংলাদেশে মোট ১ দশমিক শুন্য ৬৮ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ রয়েছে।

সম্প্রতি, রাজধানী ঢাকার ১৫ লাখ বাসিন্দার স্যানিটেশন সুবিধা উন্নয়নে সরকারের উদ্যোগকে সহযোগিতা করতে ব্যাংকটি ১৭ কোটি ডলার ঋণ অনুমোদন করেছে।