করোনা আতঙ্কে আত্মহত্যা

0
1059

ভারতের অন্ধ্র প্রদেশের চিত্তর জেলায় করোনা ভাইরাস আতঙ্কে ঘটেছে মর্মান্তিক ঘটনা। এ ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে রক্ষা করতে এক ব্যক্তি আত্মহত্যা করেছেন। তার ধারণা হয়েছিল, তিনি করোনা ভাইরাস আক্রান্ত হয়েছেন।

দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়ার প্রতিনিধি রাঘবন কুমার বুধবার চিত্তর জেলার তিরুপতি থেকে জানান, স্ত্রী ও সন্তানদের করোনা ভাইরাস থেকে রক্ষা করতে ৫০ বছর বয়েসী বালা কৃষ্ণা আত্মহত্যার পথ বেছে নেন।

বালা কৃষ্ণার ধারণা হয়েছিল তিনি করোনা ভাইরাস আক্রান্ত। এই ধারণার কারণে তিনি পরিবারের সদস্যদের কাছ থেকে নিজেকে সরিয়ে নেন। কাছে এলে তাদের দিকে পাথর ছুড়তেন দূরে রাখার জন্য। পরে নিজেই মায়ের কবরের পাশে একটি গাছে ফাঁস লাগিয়ে ঝুলে পড়েন।

বালা কৃষ্ণার স্বজনরা জানান, দিনের অধিকাংশ সময় সেলফোন সেটে তিনি করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত বিভিন্ন ভিডিও ক্লিপ দেখতেন। নিয়মিত ভিডিও ক্লিপ দেখতে দেখতে এক পর্যায়ে তার মনে হয়, তিনি নিজেই করেনা ভাইরাস আক্রান্ত হয়েছেন।

কৃষ্ণার ছেলে বালা মুরালি জানান, করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন সন্দেহে গেল সপ্তাহের বুধবার তার বাবা তিরুমালা হাসপাতালে ভর্তি হন। আগে ভাইরাসজনিত রোগ সনাক্ত হওয়ায় তার মধ্যে বিশ্বাস জন্মায়, তিনি এবার করোনা ভাইরাসের শিকার হয়েছেন। গত সপ্তাহে হাসপাতালে ভর্তির পর পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে ডাক্তাররা তাকে নিশ্চিত করেন তার করোনা ভাইরাসজনিত কোন রোগ হয়নি। কিন্তু এতেও তিনি স্বস্তি পাননি।

শেষ পর্যন্ত নিজের দৃঢ় বিশ্বাস থেকে মনে করেন স্ত্রী ও সন্তানদের রক্ষা করতে হবে। করোনা ভাইরাস যেন পরিবারের ছড়িয়ে না পড়ে তাই তিনি মঙ্গলবার গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন।

উল্লেখ্য, ভারতে এখন পর্যন্ত করোনা ভাইরাস আক্রান্ত তিনজনকে সনাক্ত করা গেছে। তারা সবাই কেরালার বাসিন্দা এবং চীন ফেরত।

প্রাণঘাতি এই ভাইরাসে শুধু চীনেই আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা ৫৯ হাজার ৫৩৯ জন। দুনিয়াজুড়ে এ সংখ্যা ঠেকেছে ৬০ হাজার ৬৩ জনে। চীন ছাড়া বাকি ২৬টি দেশে যে ৫২৪ জন আক্রান্ত হয়েছেন তাদের অধিকাংশই চীনের নাগরিক। করোনা ভাইরাসে চীনে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৩৫৫ জনে। এছাড়া হংকং ও ফিলিপাইনে মারা গেছেন আরও দুই জন।