করোনা ভাইরাস সনাক্তে কিট পাচ্ছে বাংলাদেশ

চীনকে মাস্ক ও গ্লাভস দিচ্ছে বাংলাদেশ

0
835
রোববার সকালে পররাষ্ট মন্ত্রণালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখছেন পররাষ্ট্রন্ত্রী ডক্টর একে আবদুল মোমেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন ঢাকায় নিযুক্ত চীনের রাষ্ট্রদূত লি জিমিং।

করোনা ভাইরাস সনাক্ত করতে ৫০০ কিট পাচ্ছে বাংলাদেশ। চীন সরকার বাংলাদেশকে উপহার হিসেবে এই কিটগুলো দিচ্ছে। অন্য দিকে, বাংলাদেশ সরকার চীনকে দিচ্ছে মাস্ক ও গ্লাভস।

রোববার সকালে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়। সংবাদ সম্মেলনে কথা বলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডক্টর একে আবদুল মোমেন ও ঢাকায় নিযুক্ত চীনের রাষ্ট্রদূত  লি জিমিং।

চীনের রাষ্ট্রদূত জানান, করোনা ভাইরাস সনাক্ত করতে চীন সরকারের পক্ষ থেকে ৫০০ কিট বাংলাদেশকে উপহার হিসেবে দেয়া হচ্ছে। আগামী দুই দিনের মধ্যে কিটগুলো বাংলাদেশে এসে পৌঁছুবে।

চীনের রাষ্ট্রদূত লি জিমিং করোনা সনআক্তকরণ কিটের কপি ও ফিচার পররাষ্ট্র মন্ত্রীর হাতে তুলে দেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রী গুরুত্বপূর্ণ কিটগুলো উপহার দেয়ায় চীন সরকারকে ধন্যবাদ জানান।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডক্টর একে আবদুল মোমেন তার বক্তব্যে জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ও এতে প্রাণহানির ঘটনায় সমবেদনা জানিয়ে চিঠি দিয়েছেন চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপেংকে।

ডক্টর একে আবদুল মোমেন প্রধানমন্ত্রীর দেয়া চিঠি রাষ্ট্রদূতের কাছে হস্তান্তর করেন। এ সময় পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে চীনের জনগণের জন্য উপহার হিসেবে মাস্ক ও গ্লাভস দেয়া হয়েছে।

করোনা ভাইরাসে এ পর্যন্ত প্রায় পৌণে এক লাখ মানুষ আক্রান্ত হয়েছে। এর অধিকাংশই চীনের হুবেই প্রদেশের নাগরিক। চীনে এই পর্যন্ত এক হাজার ৬৬৫ জন মারা গেছেন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে।

চীন সরকার এই ভাইরাস থেকে অন্যদের রক্ষা করতে হুবেই প্রদেশকে নিজ দেশের পাশাপাশি পুরো বিশ্ব থেকে বিচ্ছিন্ন করেছে। হুবেই প্রদেশের সাথে শুধুমাত্র খাবার ও জীবন রক্ষাকারী ওষুধ সরবরাহ ব্যবস্থা চালু রেখেছে চীন সরকার।