ছাত্রলীগ নেতাদের জরিমানা ও মুচলেকায় রেহাই

0
317

আইন অমান্য করায় আটক হয়েছেন ছাত্রলীগের ঢাকা মহানগর উত্তর শাখার সভাপতি মোহাম্মদ ইব্রাহিম ও তার ৪২ সঙ্গী। সুন্দরবন বিভাগের শরণখোলা রেঞ্জে লঞ্চ নিয়ে উচ্চশব্দে গান বাজিয়ে প্রবেশ করার অভিযোগে তাদের আটক করা হয়। তবে মুচলেকা ও জরিমানা দিয়ে তারা এ যাত্রায় রেহাই পেলেন।

সোমবার সকালে তাদের সুন্দরবনের সুপতি ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ সাইটে তাদের আটক করা হয়। কৃতকর্মের জন্য লিখিতভাবে ভুল স্বীকার করে নির্ধারিত জরিমানা পরিশোধ করে তারা। এরপর সন্ধ্যায় তাদের ছেড়ে দেয়া হয়।

শরণখোলা রেঞ্জের সহকারি বন সংরক্ষক জয়নুল আবেদীন জানান, করোনাকালে সুন্দরবনে পর্যটনসহ জনগণের প্রবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

তিনি জানান, লিখিতভাবে ভুল স্বীকার করে ছাত্রলীগের ৪৩ নেতা-কর্মী ২২ হাজার ২৩১ টাকা জরিমানা পরিশোধ করে। ফলে সন্ধ্যায় তাদের ছেড়ে দেয়া হয়। এছাড়া সুন্দরবনে অবৈধ অনুপ্রবেশের কারণে তাদের বহনকারী লঞ্চের মালিক ফারুক তালুকদারকে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

জানা গেছে, সোমবার সকালে লঞ্চ নিয়ে ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রলীগের সভাপতি ইব্রাহিমসহ মঠবাড়িয়া উপজেলার ৪৩ নেতাকর্মী এমভি মায়ের দোয়া নামের একটি লঞ্চ নিয়ে সুন্দরবনে প্রবেশ করে। এ সময় তারা উচ্চ শব্দে বাদ্যযন্ত্র বাজিয়ে ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ সাইটে প্রবেশ করে।

তারা লঞ্চ থেকে জেটিতে নামার চেষ্টা করলে বন কর্মকর্তারা নামতে নিষেধ করেন। এতে ছাত্রলীগ নেতারা উত্তেজিত হয়ে বন কর্মকর্তা ও বনরক্ষীদের সাথে অশোভন আচরণ করেন। পরে লঞ্চের পাঁচ স্টাফসহ ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের সুন্দরবনে অবৈধ অনুপ্রবেশের অভিযোগে আটক করা হয়।