জিয়া, এরশাদ, খালেদা বাংলার মাটির সন্তান না

0
1450
বুধবার ইতালির রোমে বাংলাদেশ কমিউনিটির গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা


জিয়াউর রহমান, অবসরপ্রাপ্ত লে.জেনারেল হু.মো এরশাদ ও বেগম খালেদা জিয়ার কেউই বাংলাদেশের মাটির সন্তান নন। তাদের কারও জন্মই বাংলাদেশ ভূখণ্ডে নয়। এমন তথ্যই দিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মঙ্গলবার রোমের স্থানীয় সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় পার্কো দ্য প্রিন্সিপি গ্র্যান্ড হোটেল অ্যান্ড স্পা’য় বাংলাদেশ কমিউনিটির দেয়া গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী এমন তথ্য দিলেন। বললেন, ‘জিয়াইর রহমান, খালেদা জিয়া ও এরশাদ… কেউই বাংলাদেশের মাটির সন্তান না। এ পর্যন্ত যতোজন ক্ষমতায় এসেছে, এদের একজনও বাংলাদেশের মাটির সন্তান নয়। কেবলমাত্র আমার বাবা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং আমি শেখ হাসিনা বাংলাদেশের মাটির সন্তান।’

শেখ হাসিনা বলেন, জিয়াউর রহমানের জন্ম বিহারে। এরশাদের জন্ম কুচবিহারে। খালেদা জিয়ার জন্মও ভারতের শিলিগুড়িতে। একজনও এই মাটির সন্তান না। আপনারা হিসাব করে দেখবেন, একজনও বাংলাদেশের মাটির সন্তান না।

জাতির জনকের কন্যা বলেন, ‘যেহেতু আমাদের মাটির টান আছে, এজন্য আমাদের একটা কর্তব্যবোধ আছে। অনেকেই ক্ষমতায় এসেছে, কিন্তু এদেশ সম্পর্কে জানে না। কারণ যাদের জন্ম বাংলাদেশের মাটিতে হয়নি, তারা জানবে কোথা থেকে।’

উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বর্তমানে রাষ্ট্রীয় সফরে ইতালিতে আছেন। সেখানে আজ  বুধবার তিনি ইতালির প্রধানমন্ত্রী জিউসেপ কন্টির সাথে ইতোমধ্যেই দ্বি-পাক্ষিক আলোচনায় অংশ নিয়েছেন। বৈঠকে তিনটি দ্বি-পাক্ষিক চুক্তি স্বাক্ষরিত হওয়ার কথা রয়েছে। প্রস্তাবিত চুক্তিগুলি সাংস্কৃতিক বিনিময়, কূটনৈতিক ও রাজনৈতিক আলোচনা সংক্রান্ত। বৈঠকের পর যৌথ ইশতেহার জারির কথা রয়েছে। দুই শীর্ষ নেতার আলোচনায় দ্বি-পাক্ষিক বিভিন্ন ইস্যু ছাড়াও বৈশ্বিক নানা বিষয় স্থান পাচ্ছে বলে জানা গেছে।

দুই শীর্ষ নেতার বৈঠকের পর ইতালির শীর্ষ ব্যবসায়ীরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে সৌজন্য সাক্ষাত করবেন পার্কো দ্য প্রিন্সিপি গ্র্যান্ড হোটেল অ্যান্ড স্পা’য়।

বৃহস্পতিবার (৬ ফেব্রুয়ারি) সকালে ভ্যাটিকান সিটিতে পোপ ফ্রান্সিসের সাথে দেখা করবেন শেখ হাসিনা। ভ্যাটিকান সিটি থেকে দুপুর ১২টা ৫০ মিনিটে রোম থেকে ট্রেনে মিলানের উদ্দেশে যাত্রা করবেন তিনি।

মিলান সফরে অ্যাক্সেলসিয়র হোটেল গালিয়ায় অবস্থান করবেন শেখ হাসিনা। পরদিন স্থানীয় সময় দুপুর ১টা ৪০ মিনিটে তিনি এমিরাটসের একটি ফ্লাইটে মিলানের মালপেন্সা বিমান বন্দর থেকে রওনা হবেন। দুবাই হয়ে ৮ ফেব্রুয়ারি শনিবার সকাল সোয়া ৮টায় দেশে ফেরার কথা রয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার।