বায়ুদূষণ রোধে অভিযান

0
1375

বায়ু দূষণের বিরুদ্ধে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) ভ্রাম্যমাণ আদালত শুরু হয়েছে। ডিএনসিসির মহাখালী অঞ্চলের আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মীর নাহিদ আহসান এবং প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ আবদুল হামিদ মিয়া ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন।

বুধবার সকালে রাজধানীর নিকেতন, মহানগর প্রজেক্ট এবং বনশ্রী এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়। ভ্রাম্যমাণ আদালতের কার্যক্রম ডিএনসিসি মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলাম পরিদর্শন করেন।

পরিদর্শনকালে মেয়র আতিকুল ইসলাম বায়ু দূষণ সম্পর্কে সচেতন করার জন্য পথচারীদেরকে প্রচারপত্র বিলি করেন। মেয়র বলেন, সকল উন্নয়ন কাজ, নির্মাণকাজ কমপ্লায়েন্স মেনে চলতে হবে। কমপ্লায়েন্স না মেনে উন্নয়ন কাজটি সিটি কর্পোরেশনের হলেও তাকেও ছাড় দেয়া হবে না। ভ্রাম্যমাণ আদালত চলাকালে সড়ক ও ফুটপাতে নির্মাণসামগ্রী রাখা এবং এর ফলে বায়ু দূষণের অভিযোগে স্থানীয় সরকার আইন (সিটি কর্পোরেশন), ২০০৯ অনুযায়ী ডিএনসিসির ১ জন ঠিকাদারসহ ৪ জনের প্রত্যেককে ২০ হাজার টাকা করে মোট ৮০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এছাড়া গুলশান ১ নম্বর ও ২ নম্বর এর মিডিয়ানে রেনেসা হোটেল কর্তৃক অবৈধভাবে স্থাপিত বিলবোর্ড উচ্ছেদ করা হয়। এ সময় মেয়র বলেন, অনেকেই নিজেকে ক্ষমতাবান মনে করেন, যা খুশি তাই করেন, আইন মানেন না, তোয়াক্কা করেন না, কিন্তু মনে রাখতে হবে দেশের উপরে, সরকারের উপরে ক্ষমতাবান কেউ নেই। তিনি বলেন, হুট করে যে কেউ এসে রাস্তার মিডিয়ান, ফুটপাত, লাইটপোস্টে বিলবোর্ড, ব্যানার, ফেস্টুন লাগাবেন, অবৈধ বিদ্যুৎ সংযোগ নেবেন, যা খুশি তাই করবেন, এভাবে চলতে পারে না। সিটি কর্পোরেশনের অনুমতি নেয়ার বিধান আছে, সেগুলো মেনে চলতে হবে। আইন মানার মানসিকতা গড়ে তুলতে হবে। তিনি আরো বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সুস্পষ্ট নির্দেশনা আছে আইন অমান্যকারী, দুর্নীতিবাজ, সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স। তাই আইনের প্রতি সবাইকে শ্রদ্ধাশীল হতে হবে, আইন মানতে হবে। আমরা আজকে এসব অবৈধ বিলবোর্ড অপসারণ করেছি, এরপর থেকে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। পরে মেয়র মহানগর প্রজেক্ট ও বনশ্রীতে ডিএনসিসির উন্নয়ন কাজের ফলে বায়ু দূষণ হচ্ছে কিনা তা পরিদর্শন করেন।

ভ্রাম্যমাণ আদালত চলাকালে ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আব্দুল হাই, প্রধান প্রকৌশলী ব্রিগেডিয়ার সাইদ আহমেদ, প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা কমোডোর মঞ্জুর হোসেন উপস্থিত ছিলেন। # সংবাদ বিজ্ঞপ্তি।