ভোটাররা সংশয়ে

কাস্তে প্রতীকের ডা. রুবেলের গণসংযোগ

0
1300

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি) মনোনীত কাস্তে মার্কার মেয়র প্রার্থী ডাক্তার আহাম্মদ সাজেদুল হক রুবেল মিরপুর সিরামিক ফ্যাক্টরীর সামনে পথসভা করেছেন।

বুধবার অনুষ্ঠিত পথসভায় ডাক্তার রুবেল বলেছেন, ধনী আর গরিবের জন্য দুই ঢাকা নীতি আর চলবে না, শ্রমজীবী মানুষের নাগরিক হিস্যা বুঝে নিতে কাস্তে মার্কায় ভোট দিন।

তিনি বলেন, ঢাকা শহরের গরিব-মধ্যবিত্ত ৯৫ শতাংশ মানুষ নাগরিক সুবিধা বঞ্চিত। কারণ ক্ষমতাসীনরা এতদিন ধরে দুই ঢাকা নীতিতে কাজ করেছে। বড়লোকের জন্য এক ধরনের ব্যবস্থা, গরিবের জন্য আরেক ধরনের ব্যবস্থা। একদিকে, ভিআইপি রোড আরেক দিকে রিকসা-বস্তি-হকার উচ্ছেদ। মিরপুর কালসী এলাকায় জিএসএস দেয়াল দিয়ে আটকে দিয়েছে। নিম্ন আয়ের সাধারণ মানুষ সেখানে দুঃসহ পরিস্থিতির মধ্যে দিন কাটাচ্ছে। গ্যাস-পানি নেই। অনেকটা ছিট মহলের মতো দিন কাটাচ্ছে। কিন্তু দেখার কেউ নেই। বিগত সময়ে মেয়ররা শুধু মিথ্যা আশ্বাস দিয়েছেন। কার্যত কিছুই করেন নি। দুই কোটি মানুষের ঢাকা শহরে বিত্তবানদের জন্য সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা আছে। কিন্তু ঢাকার ৯৫ শতাংশ মূল জনগোষ্ঠী হল গরিব-মধ্যবিত্ত। তাদের জন্য ঢাকা শহরে বসবাস দুঃসহ হয়ে পড়েছে।

ডাক্তার রুবেল বলেন, যানজট, জলাবদ্ধতা, দূর্বল পয়ঃনিষ্কাশন ব্যবস্থা, মশা, ভাঙা রাস্তা, অপরিকল্পিত গণপরিবহন, অপর্যাপ্ত খেলাধূলা, বিনোদন সব মিলিয়ে এক বিপর্যস্ত পরিস্থিতি। প্রতিবছর সিটি কর্পোরেশনের বাজেট বাড়ছে। কিন্তু জনগণের সেবার মান কমছে। মশা নিধনের ক্ষেত্রে চরম অব্যবস্থাপনা ঢাকার মানুষ এবছর প্রত্যক্ষ করেছে।

তিনি আরও বলেন, আমরা ভোটারদের কাছে গিয়ে কথা বলছি, গণসংযোগ করছি। তাদের মধ্যে নির্বিঘ্নে ভোট দিতে পারা নিয়ে সংশয় রয়েছে। এ সংশয় দূর করার জন্য নির্বাচন কমিশনকেই পদক্ষেপ নিতে হবে। যদিও সাধারণ ভোটররা সুষ্ঠু ও নিরাপদ পরিবেশে ভোট দিতে উন্মুখ হয়ে রয়েছে। তারা বড় দুই দলের বিকল্প চায় বলেই বড়লোকের বড় মার্কা ফেলে কাস্তে মার্কাকে সমর্থন দিচ্ছে। জনগণ জেনে গেছে যে, তাদের ঐক্যবদ্ধ হওয়া ছাড়া বঞ্চনা থেকে মুক্তি নেই। এ কারণে শ্রমজীবী সাধারণ মানুষ দৃঢ় সংকল্প নিয়ে কাস্তে মার্কার পক্ষে ঐক্যবদ্ধ হচ্ছে।

আজ বুধবার পূরবী সিনেমা হলের সামনে থেকে শুরু হয়ে মিরপুর সাড়ে এগারো বাসস্ট্যান্ড, কালসী, মিরপুর ১২ নম্বর, সিরামিক ফ্যাক্টরির মোড়, পল্লবী, কালাপানি এলাকায় গণসংযোগ ও লিফলেট বিতরণ করা হয়।

সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা ডাক্তার রফিকুল ইমলাম, সিপিবি নেতা আসলাম খান, যুব ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক খান আসাদুজ্জামান মাসুম, সিপিবি মগবাজারের কেন্দ্রীয় নেতা জাহিদ হোসেন খান, সিপিবি পল্লবী থানার নেতা বিপ্লব আল মাহমুদ প্রমুখ।

এছাড়া আজ মোহাম্মাদপুর বাসস্ট্যান্ড-কৃষি মার্কেট এলাকায় কাস্তে মার্কার গণসংযোগ ও পথসভা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় বক্তব্য রাখেন কমরেড আহসান হাবিব লাবলু, শংকর আচার্য।

তেজগাঁও নাবিস্কো মোড়ে কাস্তে মার্কার গণসংযোগ শেষে পথসভায় বক্তব্য রাখেন শ্রমিকনেতা সাদেকুর রহমান শামীম, শহীদুল ইসলাম প্রমুখ। মগবাজার এলাকায় গণসংযোগ করেন মস্তান শের, জহিরুল ইসলাম প্রমুখ।

আগামীকালের কর্মসূচি:
১৬ জানুয়ারি ২০২০, বৃহস্পতিবার, সকাল ১১টায় উত্তরা আজমপুর বাজার থেকে ডা. রুবেল তার নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করবেন। কেন্দ্রীয় নেতা কমরেড রুহিন হোসেন প্রিন্সসহ অন্যান্য নেতারা তার সাথে থাকবেন।