মেয়র প্রার্থী নিয়ে বিএনপি’তে ক্ষোভ

0
1237

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপি তাদের মেয়র প্রার্থীর নাম ঘোষণা করেছে। দুই সিটির কোনটিতেই স্থান হয়নি দলের প্রতি নিবেদিত ও বিশ্বস্ত কোন নেতা। উত্তরে মনোনয়ন পেলেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা, ব্যবসায়ী নেতা আবদুল আউয়াল মিন্টুর ছেলে তাবিথ আউয়াল। আর দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের জন্য মনোনয়ন পেলেন প্রয়াত নেতা সাদেক হোসেন খোকার ছেলে ইশরাক হোসেন। এই দুই জনের মনোনয়ন প্রাপ্তিতে ক্ষুব্ধ দলের অধিকাংশ নেতা কর্মীরা। এ বিষয়ে ফেসবুকেও তাদের অনেকে ক্ষোভ প্রকাশ করছেন। এরমধ্যে জাতীয়তাবাদী ছাত্র দলের এক সময়ের প্রভাবশালী নেত্রী মুন্নী চৌধুরী বিভিন্ন যুক্তি দিয়ে লিখেছেন কেন তাবিথ ও ইশরাকের প্রার্থীতা তিনি পছন্দ করছেন না। ফেসবুকে নিজের টাইম লাইনে মুন্নী লিখেছেন :

#বলদের জায়গাতে ভেড়া দিয়া ধান মাড়ানোর কাজ——-

নেতাদের ছেলেরা নেতা হবে বা রাজনীতিতে আসবেএটা স্বাভাবিক।

সাদেক হোসের খোকা ভাইর মৃত্যুর আগে ও পরে তাঁর ছেলে ইশরাক এর রাজনৈতিক ব্যক্তিগত পরিচয় শুধুই খোকা ভাইর সন্তান ছাড়া কি আছে ?

অন্য দিকে তাবিদ আওয়াল,আব্দুল আওয়াল মিন্টু সাহেবের ছেলে।তিনি আওয়ামিলীগ বিএনপি সব জায়াগাতে উপদেষ্টা হবার যোগ্যতা সম্পূর্ণ ব্যবসায়ী নেতা।তারই বিদেশে পড়াশুনা করা শিক্ষিত ছেলে তাবিদ আওয়াল । ভাল trading business বুঝে।

জাতি জানতে চায়,এই দুই প্রার্থীর রাজনৈতিক যোগ্যতা কি ?

এরা রাজনীতির কি বুঝে???এদের কর্ম পরিকল্পনা কি এরা জানে?

আমরা বুঝলাম প্রবীনদের বয়স নাই নতুন নেতৃত্ব চায় নেতৃত্বে থাকা নেতারা।কিন্তু এ কেমন চাওয়া।যে কোন দিন রাজপথে মিছিল করে নাই,মিটিং করে নাই,পুলিশের আঁচড় খায় নাই,জেলে যায় নাই,দলীয় অফিসে আসে নাই,নিজ এলাকার মানুষের নাম ঠিকানা জানে না।তারা কি যোগ্যতায় ঢাকা সিটির মেয়র হয়?!!!

পুঁজিবাদিদের কাছে সকল রাজনৈতিক দল আজ বিক্রি হয়ে গেছে তাই গনতন্ত্রের কথা বলে আওয়ালে কেউ আপনাদের সাথে আসতে চায় না।

আপনাদের যোগ্যতার চাইতে বেশি পেয়ে গেছেন তাই আপনাদের কাছে ত্যাগ ও বিপ্লব কোন দাম নাই।

রাজনৈতিক ভাবে দক্ষ সাবেক ছাত্র নেতারা বা ঢাকার রাজপথের মানুষের সাথে পরিচিত আর কি কোন নেতা ছিল না???শুধু কি বিএনপির সাইন বোর্ড গলায় থাকলেই আপনাদের যে কেউ বড় দায়িত্ব দিয়ে দিবে??? এটা কি কোন একটা বড় রাজনতৈকি দলের সঠিক সিদ্ধান্ত????

তাও জনগন ভোট দিলে একটা কথা ছিল ভোট আর নির্বাচন তো হাসিনা করব তাই হয়ত বলদের জায়গাতে ভেড়া দিয়া ধান মাড়ানোর কাজ করেন।

আপনাগো আল্লাহ হেদায়েত করুক। দেখলাম স্বপ্নে ধান গাছ আপনারা ঐডারে জঙ্গলীসার বানায়া ছাইরা দিতাছেন।

[লেখাটি মুন্নী চৌধুরীর ওয়াল থেকে সরাসরি কপি করা। এর প্রতিটি বাক্য ও বানান যা ছিল তা অপরিবর্তিত রাখা হয়েছে। –সম্পাদক]