রাজধানীতে ৫৪ ঘন্টার পরিবহন পরিস্থিতি

0
1348
ফাইল ছবি

৩০ জানুয়ারি মধ্যরাত থেকে টানা ৫৪ ঘন্টা রাজধানীতে মোটরসাইকেল চালানো যাবে না। ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচনের কারণে এই নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এই বিধিনিষেধের সময় শেষ হবে ২ ফেব্রুয়ারি ভোর ৬টা পর্যন্ত। এছাড়া ৩১ জানুয়ারি মধ্য রাত থেকে পয়লা ফেব্রুয়ারি নির্বাচনের দিন সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত বন্ধ থাকবে সব ধরনের যানবাহন চলাচল।

ইসি’র যানচলাচলে বিধিনিষেদের আলোকে ইতোমধ্যে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ও প্রজ্ঞাপন জারি করেছে। প্রজ্ঞাপনের অনুলিপি পৌঁছেছে গণপরিবহন মালিক সমিতির কাছেও।

সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় ছাড়াও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগও ইসি’র নির্দেশনা অনুযায়ী পরিপত্র জারি করেছে।

তবে দুই সিটি নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তার অনুমতি নিয়ে অথবা নির্বাচন কমিশন থেকে সরবরাহ করা স্টিকার ও পরিচয়পত্র ব্যবহার করে মোটর সাইকেল ও বিভিন্ন যানবাহন ব্যবহার করা যাবে।

নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থী ও তাদের এজেন্ট, দেশি-বিদেশি পর্যবেক্ষক এবং দেশি-বিদেশি সাংবাদিকরা এই বিধিনিষেধের আওতায় পরবেন না।

সাংবাদিক ও পর্যবেক্ষকদের নিজস্ব প্রতিষ্ঠানের পরিচয়পত্রের পাশাপাশি ইসি থেকে সরবরাহ করা স্টিকার ও পরিচয়পত্র সাথে রাখতে হবে। এছাড়া নির্বাচনী কাজে যুক্ত কর্মকর্তা-কর্মচারি, আনি-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য, নির্বাচনের বৈধ পরিদর্শক এবং অ্যাম্বুলেন্স, ফায়ার সার্ভিস, বিদ্যুৎ, গ্যাস, পানি, ডাক ও টেলিযোগাযোগের মত জরুরী সেবামূলক প্রতিষ্ঠানের গাড়ি নিষেধাজ্ঞার আওতায় পরবে না।

৩১ জানুয়ারি রাত ১২টা থেকে পয়লা ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত সিএনজি চালিত অটোরিকশা, মাইক্রোবাস, পিকআপ, ট্যাক্সি ক্যাব, প্রাইভেট কার, বাস, ট্রাকসহ যন্ত্রচালিত যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, দুই সিটি করপোরেশন এলাকায় জাতীয় মহাসড়ক, বন্দর ও জরুরী পণ্য সরবরাহসহ জরুরী প্রয়োজনে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এই নিষেধাজ্ঞা শিথিল করতে পারবে।

এছাড়া আন্তঃজেলা বা মহানগর থেকে বের হওয়ার জন্য গুরুত্বপূর্ণ সড়ক, মহাসড়ক ও প্রধান প্রধান সংযোগ সড়ক বা এ জাতীয় সব রাস্তায় যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা শিথিল থাকবে। বিমান বন্দর, নৌ-বন্দর বা বাস টার্মিনালে যাওয়া বা আসার জন্য নিয়োজিত যানবাহন এবং কোন কোন ক্ষেত্রে মোটরসাইকেল চলাচল নিষেধাজ্ঞার আওতামুক্ত থাকবে।