শেষ পর্যন্ত জিতলো পাকিস্তান

0
1396
ম্যাচ জিতে প্যাভিলিয়নে ফিরছেন পাকিস্তানের অপরাজিত দুই ব্যাটসম্যান

তিন বল হাতে রেখেই পাকিস্তান নাটকীয়ভাবে জিতে নিল প্রথম ম্যাচ। তারা জিতলো পাঁচ উইকেটে। তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজে বাংলাদেশ পিছিয়ে গেল ০-১ ম্যাচে।

শুক্রবার বিকেলে লাহোর গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে পাকিস্তান তাদের ইনিংস শুরু করে ১৪২ রানের টার্গেট নিয়ে। তিন বল হাতে রেখে ম্যাচ শেষ করে স্বাগতিক পাকিস্তান।

শুরুতেই হোচট খেয়েছিল পাকিস্তান। নিজেদের প্রথম ইনিংসেই হারিয়েছে ওপেনার অধিনায়ক বাবর আজমকে। শফিউল ইসলামের বল উইকেটের পিছনে তালুবন্দি করেন লিটন দাস।

পাকিস্তানের পক্ষে সর্বোচ্চ রান করেন অভিজ্ঞ শোয়েব মালিক। চার নম্বরে ব্যাট করতে নেমে তিনি ৪৫ বলে ৫৮ রান করে অপরাজিত থাকেন। বাউন্ডারি হাঁকান পাঁচ বার।

দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান আসে আহসান আলীর ব্যাট থেকে। তিনি ৩২ বলে ৪ চারে ৩৬ রান করেন।

বাংলাদেশের পক্ষে ২৭ রানে ২ উইকেট নেন শফিউল ইসলাম। এছাড়া একটি করে উইকেট নেন মুস্তাফিজ, আল আমিন ও আমিনুল।

এর আগে,  টস জিতে ব্যাট করতে নামে সফরকারী বাংলাদেশ। দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও মোহাম্মদ নাঈম শেখ শুরুটা করেন ঝড়ো গতিতে। দলীয় ৭১ রানে তামিম ফেরেন প্যাভিলিয়নে। রান আউট হওয়ার আগে চার বাউন্ডারি আর এক ছয়ে ৩৪ বলে ৩৯ রান করেন এই হার্ড হিটার।

ওয়ান ডাউনে নামা লিটন দাস ১৩ বলে করেন ১২ রান। এতে চারের মার ছিল ২টি। তামিমের মত লিটনও সাজঘরে ফেরেন রান আউট হয়ে। দলীয় রান তখন ৯৮।

লিটন আউট হওয়ার পর দলীয় রান বাড়ার আগেই বিদায় নেন নাঈম। শাদাব খানের বলে  ইফতেখারের তালুবন্দি হওয়ার আগে আরেক টাইগার ওপেনার মোহাম্মদ নাঈম শেখ করেন ৪৩ রান। ৪১ বলে সাজানো ইনিংসে বল সীমানা ছাড়া করেন তিনবার। আর উড়িয়ে বল সীমানা ছাড়া হয় দুই বার।

অধিনায়ক মাহমুদউল্ল্যাহ রিয়াদ চার নাম্বারে ব্যাট করতে নামার পরের বলেই আউট হন নাঈম শেখ। চতুর্থ উইকেট জুটিতে রিয়াদ ও আফিফ হোসেন ধ্রুব রানের চাকা সচল রাখার চেষ্টা করেন। কিন্তু ২১ রানেই থেমে যায় এই জুটি। দলীয় ১১৯ রানে বিদায় নেন ধ্রুব। তার সংগ্রহ ১০ বলে ৯ রান। ধ্রুব উইকেট নিয়ে হারিস রউফ তার প্রথম আন্তর্জাতিক উইকেটি সংগ্রহ করেন।

আফিফ হোসেন ধ্রুব আউট হলে সৌম্য সরকারের সাথে জুটি বাঁধেন দলপতি রিয়াদ। কিন্তু সৌম্য মাত্র ৫ বলে একটি বাউন্ডারি নিয়ে ৭ রান করে আউট হয়ে যান। তার উইকেট নেন শাহীন শাহ আফ্রিদি।

দুই বাউন্ডারিতে ১৪ বলে ১৯ রানে অপরাজিত থাকেন অধিনায়ক রিয়াদ। তার সাথে আরেক অপরাজিত ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ মিথুন এক বাউন্ডারির সহায়তায় ৩ বলে করেন পাঁচ রান।

পাকিস্তানের এই জয়ে তাদের ব্যাটসম্যানদের যতোটা কৃত্বি তারচেয়ে বেশি ব্যর্থতা ছিল বাংলাদেশের ফিল্ডারদের। তাদের ক্যাচ মিসের মহড়াই ডুবিয়েছে বাংলাদেশকে।

২০ ওভার শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৫ উইকেটে মাত্র ১৪১ রান রান।

বাংলাদেশ ইনিংস: নাঈম ৪৩, তামিম ৩৯, রিয়াদ ১৯*, লিটন ১২, ধ্রুব ৯, সৌম্য ৭ ও মিথুন ৫*; শাহীন শাহ আফ্রিদি ২৩/১, শাদাব খান ২৬/১,  হারিস রউফ ৩২/১।

পাকিস্তান ইনিংস: শোয়েব মালিক ৫৮*, আহসান আলী ৩৬, মোহাম্মদ হাফিজ ১৭, ইফতিখার আহমেদ ১৬, ইমাদ ওয়াসিম ৬, মোহাম্মদ রিজওয়ান ৫*; শফিউল ২৭/২, আল আমিন হোসেন ১৮/১, আমিনুল ইসলাম ২৮/১ ও মুস্তাফিজুর রহমান ৪০/১।

ম্যান অব দ্য ম্যাচ: শোয়েব মালিক (পাকিস্তান)।