সভাপতি হবেন স্নাতক পাশ

0
572

এতদিন সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি ও সদস্যদের শিক্ষাগত যোগ্যতা নির্ধারিত ছিলনা। এর ফলে স্বল্প শিক্ষিত এবং কোথাও কোথাও অশিক্ষিত ব্যক্তিরা কমিটিতে নির্বাচিত হয়ে শিক্ষকদের ওপর খবরদারি করতেন। এ কারণে ক্ষোভ ছিল শিক্ষকদের মধ্যে।

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির নামে এ কমিটিতে ১১ জন সদস্য রয়েছেন। পদাধিকারবলে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বা ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক কমিটির সদস্য-সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।

কমিটিতে সদস্য হিসেবে রয়েছেন- সংশ্লিষ্ট বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের অভিভাবকদের মধ্য থেকে মনোনীত একজন নারী ও একজন পুরুষ যাদের যোগ্যতা হবে এসএসসি পাস। বিদ্যালয়ের একজন জমিদাতা বা জমিদাতার উত্তরাধিকারী, একই উপজেলার সংশ্লিষ্ট প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নিকটবর্তী যে কোনো সরকারি বা বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক বা শিক্ষিকা, সংশ্লিষ্ট প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষিকাদের মধ্য থেকে নির্বাচিত একজন শিক্ষক প্রতিনিধি, সংশ্লিষ্ট বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের অভিভাবকদের মধ্য হতে নির্বাচিত দুইজন নারী অভিভাবক ও দুইজন পুরুষ অভিভাবক এবং ইউনিয়ন পরিষদের সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের একজন সদস্য বা পৌর এলাকার সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড কমিশনার বা সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর।

কমিটি গঠন পদ্ধতি নিয়ে বলা হয়- কমিটির সদস্য সংখ্যা হবে সভাপতিসহ মোট ১১ জন। সংশ্লিষ্ট প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও শিক্ষক প্রতিনিধি ছাড়া অন্য সদস্যদের মধ্য থেকে একজন সভাপতি এবং একজন সহ-সভাপতি নির্বাচিত হবেন।

সভাপতির শিক্ষাগত যোগ্যতা নির্ধারণ করে দিয়ে বলা হয়, সভাপতিকে ন্যূনতম স্নাতক ডিগ্রিধারী হতে হবে। আর একই ব্যক্তি দুইবারের বেশি একই বিদ্যালয়ের সভাপতি নির্বাচিত হতে পারবেন না।