২/৩ দিনের মধ্যেই চীনকে ছাড়িয়ে যাবে বাংলাদেশ

0
349

করোনার সূতিকাগার চীনের পরেই এখন বাংলাদেশের অবস্থান। জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটারের হিসেব অনুযায়ী চীনের অবস্থান নেমে এসেছে ১৮ নাম্বারে। আর বাংলাদেশ আছে ১৯ নাম্বারে।

গেল সপ্তাহে বাংলাদেশ তালিকার ২১ নাম্বারে ছিল। চলতি সপ্তাহে বেলজিয়ামকে পিছনে ফেলে বাংলাদেশের অবস্থান হয় ২০ নাম্বারে। বুধবার (আজ) কাতারকে টপকে বাংলাদেশ ১৯ নাম্বারে উঠে এসেছে। দেশে যে ভাবে সংক্রমণ ঘটছে তাতে আগামী শুক্র বা শনিবার বাংলাদেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা চীনকে ছাড়িয়ে যাবে।

বুধবার স্বাস্থ্য অধিদফতর জানায়, দেশে নতুন করে করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন ৩ হাজার ১৯০ জন। আক্রান্তের মোট সংখ্যা ৭৪ হাজার ৮৬৫ জন।

অন্যদিকে, গত এক মাস ধরে চীনে কেউ করোনা ভাইরাসে মারা যাননি। আক্রান্তের সংখ্যাও কমেছে। প্রায় দিনই নতুন করে কোন রোগী শনাক্ত হচ্ছেন না। হলেও সেটি ১ থেকে ১০ জনের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকছে।

ওয়ার্ল্ডোমিটারের হিসাব অনুযায়ী, এ পর্যন্ত করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৮৩ হাজার ৪৬ জন। গত ২৪ ঘন্টায় সেখানে নতুন করে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছেন ৩ জন। যা বাংলাদেশ থেকে ৩ হাজার ১৮৭ জন কম।

চীনে গত ৭ মাসে মারা গেছেন ৪ হাজার ৬৩৪ জন। অন্যদিকে, বাংলাদেশে গত ২ মাস ১৬ দিনে মারা গেছেন ১ হাজার ১২ জন।

চীনে বর্তমানে করোনা রোগী আছেন ৫৫ জন। সেখানে বাংলাদেশে বর্তমানে রোগীর সংখ্যা ৫৭ হাজার ৯৫৩ জন।

চীনে মোট ৮৩ হাজার ৪৬ জন আক্রান্তের মধ্যে মারা গেছেন ৪ হাজার ৬৩৪ জন। সুস্থ হয়েছেন ৭৮ হাজার ৩৫৭ জন। বাকি ৫৫ জনের চিকিৎসা চলছে। এই ৫৫ জনের মধ্যে আশঙ্কাজনক অবস্থায় আছেন এক জন।

অন্যদিকে, বাংলাদেশে ৭৪ হাজার ৮৬৫ জন আক্রান্তের মধ্যে এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১৫ হাজার ৯০০ জন। বর্তমান পরিস্থিতিতে আগামী ২/৩ দিনের মধ্যে বাংলাদেশ চীনকে রোগীর সংখ্যার দিক থেকে ছাড়িয়ে যাবে। স্বাস্থ্য সচেতনতার কারণে বাংলাদেশে মৃতের সংখ্যার দিক থেকেও চীনকে ছাড়িয়ে যাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।